সিলেট বোর্ডে গত বছরের চেয়ে পরীক্ষার্থী বেড়েছে ৪৭৬১ জন

newsup
  • আপডেট টাইম : November 02 2021, 04:31
  • 539 বার পঠিত
সিলেট বোর্ডে গত বছরের চেয়ে পরীক্ষার্থী বেড়েছে ৪৭৬১ জন

নিউজ ডেস্কঃ সিলেট শিক্ষা বোর্ডে গতবারের চেয়ে এবার ৪ হাজার ৭৬১ জন পরীক্ষার্থী বেড়েছে। কেবল পরীক্ষার্থী নয়, বেড়েছে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানও। এবছর মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ১ লাখ ২১ হাজার ১৩১ জন। গেল বছর পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ১ লাখ ১৬ হাজার ৩৭০ জন। করোনার কারণে দেরিতে হলেও আগামী ১৪ নভেম্বর রোববার থেকে সারাদেশের মতো সিলেট বিভাগের ১৪৬টি কেন্দ্রে এসএসসি পরীক্ষা শুরু হবে। প্রথমবারের মতো এবারের এসএসসি পরীক্ষায় একজন পরীক্ষার্থী ৩টি নৈর্বাচনিক বিষয়ে পরীক্ষা দেবেন। এজন্যে সময় কমিয়ে দেড় ঘণ্টা নির্ধারণ করা হয়েছে।

সিলেট শিক্ষা বোর্ড সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক প্রফেসর অরুন চন্দ্র পাল জানান, প্রথমদিন সকালে পদার্থ বিজ্ঞান (তত্ত্বীয়) বিষয়ে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। করোনার কারণে এ বছর বিলম্বে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। পরীক্ষায় বিষয় কমানোর পাশাপাশি সময়ও কমানো হয়েছে। সুন্দর পরিবেশে পরীক্ষা গ্রহণের জন্যে সকল প্রস্তুতি প্রায় শেষ পর্যায়ে রয়েছে।

সিলেট শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. রমা বিজয় সরকার জানিয়েছেন, এবার একজন পরীক্ষার্থী ৩টি নৈর্বাচনিক বিষয়ে পরীক্ষা দেবেন। আগে সাধারণত পরীক্ষার সময় ছিল ৩ ঘণ্টা। কিন্তু করোনা মহামারির কারণে আগের সময় কমিয়ে দেড় ঘণ্টা নির্ধারণ করা হয়েছে। করোনার ভয় কাটিয়ে শিক্ষার্থীরা এখন পরীক্ষার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছেন। আমরাও ভালো পরিবেশে পরীক্ষা গ্রহণের জন্যে প্রস্তুতি নিচ্ছি। সিলেট শিক্ষা বোর্ডের নিজস্ব টিম ছাড়াও জেলা ও উপজেলা প্রশাসনের টিমও পরীক্ষার দায়িত্বে কাজ করবেন।

জানা গেছে, এবার সিলেট শিক্ষা বোর্ডের অধীনে ৯১৯টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে ১ লাখ ২১ হাজার ১৩১ জন পরীক্ষার্থী অংশগ্রহণ করবে। পরীক্ষার্থীদের মধ্যে ছাত্র ৫৩ হাজার ৯৪০ জন ও ছাত্রী ৬৭ হাজার ১৯১ জন। গেল বছর অনুষ্ঠিত পরীক্ষায় ছাত্র ছিল ৪৯ হাজার ৯৫৩ জন ও ছাত্রী ৬৬ হাজার ৪১৭ জন।

পর্যালোচনায় দেখা যায়, গত বছরের চেয়ে এবার ৩ হাজার ৯৮৭ জন ছাত্র ও ৭৭৪ জন ছাত্রী বেড়েছে। গতবারের চেয়ে এবার বিজ্ঞান বিভাগে ১ জন ও মানবিক বিভাগে ৫ হাজার ৪২১ জন পরীক্ষার্থী বেড়েছে। তবে, ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগে কমেছে ৬৫৯ জন পরীক্ষার্থী।

এবার সিলেট জেলায় ৩৫৩টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে অংশ গ্রহণ করছে ৪৩ হাজার ৫১৭ জন পরীক্ষার্থী। এর মধ্যে ছাত্র ১৯ হাজার ৭২৫ জন ও ছাত্রী ২৩ হাজার ৭৯২ জন। সুনামগঞ্জ জেলার ২১৬টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে ২৬ হাজার ৪৫৯ জন পরীক্ষার্থী এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করছে। এর মধ্যে ছাত্র ১২ হাজার ৩১৫ জন ও ১৪ হাজার ১৪৪ জন ছাত্রী। মৌলভীবাজার জেলায় ১৮৫টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে ২৬ হাজার ৭৪১ জন পরীক্ষার্থী অংশগ্রহণ করছে। তাদের মধ্যে ছাত্র ১১ হাজার ১৩৫ জন ও ছাত্রী ১৫ হাজার ৬০৬ জন। হবিগঞ্জ জেলায় ১৬৫টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে অংশগ্রহণ করছে ২৪ হাজার ৪১৪ জন পরীক্ষার্থী। এর মধ্যে ছাত্র ১০ হাজার ৭৬৫ জন ও ছাত্রী ১৩ হাজার ৬৪৯ জন।

এবারের পরীক্ষার্থীদের মধ্যে বিজ্ঞান বিভাগ থেকে ২১ হাজার ৬২৯ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করবেন। তাদের মধ্যে ছাত্র ১০ হাজার ৬ জন ও ছাত্রী ১১ হাজার ৬২৩ জন। মানবিক বিভাগে অংশগ্রহণ করবেন ৮৯ হাজার ৯৪৪ জন পরীক্ষার্থী। এর মধ্যে ছাত্র ৩৮ হাজার ৭৩৫ জন ও ছাত্রী ৫১ হাজার ২০৯ জন। ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগে ৯ হাজার ৫৫৮ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে ছাত্র ৫ হাজার ১৯৯ জন ও ছাত্রী ৪ হাজার ৩৫৯ জন।

করোনাহীন পরিবেশে সর্বশেষ গেল ২০২০ সালের ৩ ফেব্রুয়ারি সোমবার এসএসসি অনুষ্ঠিত হয়। ওই বছর ১৪৬ কেন্দ্রে ৯১২টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে অংশ নেন ১ লাখ ১৬ হাজার ৩৭০ পরীক্ষার্থী। এর মধ্যে ছাত্র ছিলেন ৪৯ হাজার ৯৫৩ এবং ৬৬ হাজার ৪১৭ জন ছিলেন ছাত্রী। তাদের মধ্যে বিজ্ঞান বিভাগে ২১ হাজার ৬৩০, মানবিকে ৮৪ হাজার ৫২৩ এবং ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগে ছিলেন ১০ হাজার ২১৭ জন। ২০১৯ সালে পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ১ লাখ ১৩ হাজার ৪৭২ জন। তাদের মধ্যে ছিল ৪৯ হাজার ১৯৩ ছাত্র ও ৬৪ হাজার ২৭৯ ছাত্রী।

আগামী ১৪ নভেম্বর রোববার প্রথমদিন শুধু সকালে পদার্থ বিজ্ঞান (তত্ত্বীয়) বিষয়ের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। ১৫ নভেম্বর সকালে বাংলাদেশের ইতিহাস ও বিশ্ব সভ্যতা এবং বিকেলে হিসাব বিজ্ঞান বিষয়ের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

১৬ নভেম্বর সকালে রসায়ন (তত্ত্বীয়) বিষয়ে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। ১৮ নভেম্বর সকালে শারীরিক শিক্ষা ও ক্রীড়া বিষয়ে পরীক্ষা নেওয়া হবে। ২১ নভেম্বর সকাল ও বিকেলে যথাক্রমে ভুগোল ও পরিবেশ এবং ফিন্যান্স ও ব্যাংকিং বিষয়ে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। ২২ নভেম্বর সকালে উচ্চতর গণিত এবং জীববিজ্ঞান (ঐচ্ছিক) বিষয়ে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

২৩ নভেম্বর শেষদিনে সকালে পৌরনীতি ও নাগরিকতা এবং অর্থনীতি বিষয়ে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। বিকেলে ব্যবসায় উদ্যোগ বিষয়ে পরীক্ষার মধ্য দিয়ে শেষ হবে এবারের এসএসসি পরীক্ষা।

গত ২৭ সেপ্টেম্বর শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের উপ-সচিব খালেদা আক্তার স্বাক্ষরিত এসএসসি পরীক্ষার এই সময়সূচি প্রকাশ করা হয়। এতে বলা হয়েছে, বিশেষ প্রয়োজনে বোর্ড কর্তৃপক্ষ এ সময়সূচি পরিবর্তন করতে পারেন। সময়সূচির বিশেষ নির্দেশনায় বলা হয়েছে, কোভিড-১৯ অতিমারির কারণে যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। পরীক্ষার সময় দেড় ঘণ্টা। এক্ষেত্রে এমসিকিউ ও সিকিউ উভয় অংশের পরীক্ষার মধ্যে কোনও বিরতি থাকবে না। সময়সূচি অনুযায়ী প্রতিদিন সকাল ও বিকেলে দুই শিফটে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। সকালের পরীক্ষা ১০টায় এবং বিকেলের পরীক্ষা শুরু হবে ২টায়।

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর